Type to search

কেশবপুরে পানি নিষ্কাশনের সুবিধার্থে নদী, খালে দেয়া নেট ও পাটা উচ্ছেদ অভিযান

কেশবপুর

কেশবপুরে পানি নিষ্কাশনের সুবিধার্থে নদী, খালে দেয়া নেট ও পাটা উচ্ছেদ অভিযান

জাহিদ আবেদীন বাবু, কেশবপুর (যশোর) থেকে: জলাবদ্ধতা থেকে রক্ষা পেতে কেশবপুর উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় নদী ও খালের পানি নিষ্কাশনে বাধা সৃষ্টিকারী নেট ও পাটা উচ্ছেদ অভিযান শুরু করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত।
জানা গেছে, উপজেলার বেলকাটি গ্রামের চাতরার বিলে কামরুল বিশ্বাস নামে একজন প্রভাবশালী ঘের ব্যবসায়ী স্লুইচ গেটের মুখে পাটা ও লোহার খাঁচা দিয়ে পানি আটকে রেখে দীর্ঘদিন ধরে মাছ চাষ করে আসছিলো।উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ইরুফা সুলতানা শুক্রবার দিনব্যাপী ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান পরিচালনা করে অবৈধ পাটা ও লোহার খাঁচা অপসারণ করেন। খাল অবমুক্ত করায় সংশ্লিষ্ট এলাকাবাসী খুশি হয়েছেন।
উল্লেখ্য, কেশবপুরে স্থানীয় কিছু প্রভাবশালী ব্যক্তিরা নিজেদের সুবিধার্থে খালে নেট ও পাটা দিয়ে মাছ চাষ করে আসছে। ফলে একদিকে প্রতিনিয়ত চরমভাবে বাঁধাগ্রস্থ হচ্ছে উপজেলার পাঁজিয়া, সুফলাকাটি, গৌরিঘোনা, মঙ্গলকোটসহ বিভিন্ন এলাকার পানি নিষ্কাশন ব্যবস্থা। অন্য দিকে পানির প্রবাহ না থাকায় তলদেশ ভরাট হওয়ার সাথে সাথে নব্যতা হারিয়ে গতিহীন হয়ে পড়ছে খালগুলো। পানি নিষ্কাশন ব্যবস্থা বাধাগ্রস্ত হওয়ায় বর্ষার মৌসুমে সামান্য বৃষ্টিতেই উপজেলার নিম্নাঞ্চলগুলোতে জলাবদ্ধতা সৃষ্টির কারণে পানিবন্ধি হয়ে পড়ছে।
 সম্প্রতি জেলা প্রশাসক কর্তৃক সকল সরকারি খালের পানি নিষ্কাশন ব্যবস্থা তথা খালগুলোর পানি প্রবাহের ধারা অব্যাহত রাখতে বিভিন্ন স্থানে অবৈধ নেট-পাটা উচ্ছেদে অভিযান পরিচালনা করার নির্দেশনা দেয়া হয়। এরপর উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নির্দেশে উচ্ছেদ অভিযান শুরু হয়েছে।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *