Type to search

মাঘের শুরুতেই হাড় কাঁপানো শীত, সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ৬.৫

অন্যান্য

মাঘের শুরুতেই হাড় কাঁপানো শীত, সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ৬.৫

অপরাজেয় বাংলা ডেক্স

মাঘের শুরুতেই দেশজুড়ে বেড়েছে শীতের দাপট। একটি বিভাগ ও ৯টি অঞ্চলের ওপর দিয়ে বয়ে যাচ্ছে মাঝারি থেকে হালকা শৈত্যপ্রবাহ। দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ৬ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস রেকর্ড করা হয়েছে নওগাঁ। যা এই মৌসুমের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা।

শুক্রবার (১৫ জানুয়ারি) সকালে আবহাওয়া অধিদপ্তর এসব তথ্য জানিয়েছে।
আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, টাঙ্গাইল, গোপালগঞ্জ, ময়মনসিংহ, শ্রীমঙ্গল, রাজশাহী, পাবনা, নওগাঁ, যশোর ও চুয়াডাঙ্গা অঞ্চলসহ রংপুর বিভাগের ওপর দিয়ে মৃদু শৈত্যপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে এবং তা অব্যাহত থাকতে পারে।

অধিদপ্তরের পূর্বাভাস মতে, দেশের উত্তর-পশ্চিমাঞ্চল দিয়ে বয়ে যাওয়া মাঝারি শৈত্যপ্রবাহটি একই এলাকা দিয়ে বয়ে যেতে পারে। দিন ও রাতের তাপমাত্রা আরো কমতে পারে।

শৈত্যপ্রবাহ বয়ে যাওয়া অঞ্চলগুলোর মধ্যে টাঙ্গাইলে ৯ দশমিক ৮ ডিগ্রি, গোপালগঞ্জে ৯ দশমিক ৯ ডিগ্রি, ময়মনসিংহে ৯ দশমিক ৮ ডিগ্রি, শ্রীমঙ্গলে ১০ ডিগ্রি, রাজশাহীতে ৯ ডিগ্রি, ঈশ্বরদীতে ৮ দশমিক ৮ ডিগ্রি, দিনাজপুরে ৭ দশমিক ৯ ডিগ্রি, সৈয়দপুরে ৯ দশমিক ২ ডিগ্রি, তেঁতুলিয়ায় ৮ দশমিক ৭ ডিগ্রি, ডিমলায় ১০ ডিগ্রি, রাজারহাটে ৮ দশমিক ৮ ডিগ্রি, যশোরে ১০ ডিগ্রি এবং চুয়াডাঙ্গায় ৮ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড হয়েছে।
এদিকে আজ সকাল ৯টা থেকে পরবর্তী ২৪ ঘণ্টার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, অস্থায়ীভাবে আংশিক মেঘলা আকাশসহ সারাদেশের আবহাওয়া শুষ্ক থাকতে পারে। মধ্যরাত থেকে সকাল পর্যন্ত দেশের নদ-নদীর অববাহিকার কোথাও কোথাও মাঝারি থেকে ঘন কুয়াশা পড়তে পারে এবং দেশের অন্যত্র হালকা থেকে মাঝারি ধরনের কুয়াশা পড়তে পারে।

সারাদেশে রাত ও দিনের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে। আগামী তিনদিনে তাপমাত্রার সামান্য পরিবর্তন হতে পারে।

অধিদপ্তরের জানুয়ারি মাসের দীর্ঘমেয়াদী বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছিল, এ মাসে দেশে ১-২টি শৈত্যপ্রবাহ বয়ে যেতে পারে। এর মধ্যে একটি তীব্র শৈত্যপ্রবাহে রূপ নিতে পারে। তখন তাপমাত্রা ৪-৬ ডিগ্রিতে নামতে পারে।সূত্র,অন নিউজ বিডি

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *