Type to search

মনিরামপুরে ৩টি আগ্নেস্ত্র ও গুলি উদ্ধার ইউপি সদস্যসহ ৬ জন আটক

যশোর

মনিরামপুরে ৩টি আগ্নেস্ত্র ও গুলি উদ্ধার ইউপি সদস্যসহ ৬ জন আটক

\

মনিরামপুর (যশোর) প্রতিনিধি :
যশোরের মনিরামপুর থানার ওসির নেতৃত্বে ও ডিবি পুলিশের সহযোগিতায় অভিযান চালিয়ে ৩টি আগ্নেয় অস্ত্র ও ৩ রাউন্ড গুলি উদ্ধার হয়েছে। দুই ঘের ব্যবসায়ী গুলিবিদ্ধের ঘটনায় সোমবার গভীর রাতের অভিযানে আটক এক ইউপি সদস্যসহ ৬ জনের স্বীকারোক্তি মোতাবেক এ অস্ত্র-গুলি উদ্ধার করা হয়। তবে, এখনো অভিযান অব্যাহত রয়েছে বলে জানিয়েছেন যশোর পুলিশ সুপার মোঃ আশরাফ হোসেন।
আটককৃতরা হলো উপজেলার কুমারসীমা গ্রামের মৃত. জনার্ধন সরকারে ছেলে স্থানীয় ইউপি সদস্য দেবু সরকার (৩৫), পাঁচবাড়িয়া গ্রামের তপন মল্লিকের ছেলে সুরঞ্জিত মল্লিক (২৫), ভোমরদাহ গ্রামের কাইয়ুম গাজীর ছেলে মাসুদ গাজী (২৪), সুবলকাটি গ্রামের সুন্নত সরকারের ছেলে জনি সরকার (২৪), মোতালেব হোসেনের ছেলে জিকু হোসেন (২৫) এবং একই গ্রামের আজহার আলীর ছেলে আল মামুন (২৫)।
জানাযায়, গত শুক্রবার রাত দুইটার দিকে সুবলডাঙ্গার ঘের পাড়ে ঘুমন্ত অবস্থায় দুর্বৃত্তদের ছোঁড়া গুলিতে উপজেলার শ্রীপুর গ্রামের আবু হোসেনের ছেলে মনিরুল ইসলাম মনির (৩৮) এবং একই গ্রামের মোহাম্মদ আলীর ছেলে জাহিদুল ইসলাম (৩০) গুলিবিবদ্ধ হন। এ ঘটনায় মনিরুল ইসলামের ভাই সিকদার হোসেন মোল্যা মনিরামপুর থানায় ৬/৭ জন অজ্ঞাতানামাদের আসামী করে থানায় মামলা করেন। যার মামলা নং ০৯। মামলার তদন্তকারি কর্মকর্তার দায়িত্ব দেয়া হয় থানার এসআই তপন কুমার সিংহ’র।
পুলিশ সুপার (ডিএসবি) মোহাম্মদ তৌহিদুল ইসলাম পিপিএম জানান, বিলে ঘের তেরীর বিরোধ নিয়ে দুই ঘের ব্যবসায়ী গুলিবিদ্ধের ঘটনায় তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহার করে জড়িতদের সনাক্ত করতে মাঠে নামেন তারা। মনিরামপুর থানা ও ডিবি পুলিরে যৌথ অভিযানে সোমবার রাত ১২টার দিকে ইউপি সদস্য দেবু সরকারকে আটক করা হয়। ঘটনার সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে ওই রাতেই বাকীদের আটক করা হয়। ভোররাতে দেবু সরকারসহ আটকৃতদের নিয়ে অস্ত্র অভিযানে নামে পুলিশ।
দেবু সরকারের স্বীকারোক্তি মোতাবেক তার বাড়ির সামনে বিচালি (খড়) গাদা থেকে ১টি ওয়ান শুটারগান ও ২টি শাটারগান এবং ৩ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় অস্ত্র আইনে মামলার প্রস্তুতি চলছে বলেও তিনি জানা। তবে, বুধবার প্রেসব্রিফিং-এর মাধ্যমে এ ঘটনার বিস্তারিত জানাবেন জেলা পুলিশ সুপার মোঃ আশরাফ হোসেন।
মনিরামপুর থানার ওসি রফিকুল ইসলামের নেতৃত্বে থানার ওসি (তদন্ত) সিকদার মতিয়ার রহমান, এসআই তপন কুমার সিংহ, জহির রায়হান ও ডিবি পুলিশের এসআই মফিজুর রহমান, শামীম হোসেনসহ একদল পুলিশ অভিযানে অংশ নেয়। এ অস্ত্র-গুলি দেবু সরকার নিজেই সেখান থেকে বের করে দেন বলে একটি সূত্র জানিয়েছে। জেলা পুলিশ সুপার আশরাফ হোসেন জানান, এখনো অভিযান অব্যাহত রয়েছে। পরে বিস্তারিত জানানো হবে।

 

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *