Type to search

দীর্ঘদিন পর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিশুদের কিডস অ্যালাউন্স দেয়ার প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে।

চৌগাছা

দীর্ঘদিন পর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিশুদের কিডস অ্যালাউন্স দেয়ার প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে।

চৌগাছা(যশোর) প্রতিনিধিঃ
দীর্ঘদিন পর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিশুদের কিডস অ্যালাউন্স দেয়ার প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে।

যশোরে এই তালিকায় রয়েছে ২ লাখ ১৮ হাজার ৬শ’ ৪২ শিশু। যদিও এই তালিকা করা হয়েছিল ২০১৯-২০ অর্থ বছরে। কিন্তু নানা কারণে গত দু’বছর কিড অ্যালাউন্স প্রদান করতে পারেনি প্রাথমিক ও গণশিক্ষা অধিদপ্তর। দীর্ঘদিন পরে ২০২১-২২ অর্থ বছরে কিড অ্যালাউন্স কার্যক্রম নতুন করে শুরু হয়েছে।
জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিস থেকে পাওয়া তথ্যানুযায়ী, গত অর্থ বছরে কিডস অ্যালাউন্স প্রদানের জন্য যে তালিকা করা হয় সেখানে শিক্ষার্থীর সংখ্যা ছিল ২ লাখ ১৮ হাজার ৬শ’ ৪২। এরমধ্যে সদর উপজেলায় ৫৩ হাজার ৩শ’ ৩৩, অভয়নগরে ১৬ হাজার ৫শ’ ৬৫, বাঘারপাড়ায় ১৭ হাজার ১শ’ ১, ঝিকরগাছায় ২৮ হাজার ৪শ’ ৯৪, চৌগাছায় ২১ হাজার ৭শ’ ১৬, শার্শায় ২৭ হাজার ১শ’ ৮৬, মণিরামপুরে ৩২ হাজার ১শ’ ১১ ও কেশবপুরে ২১ হাজার ১শ’ ৩৫ শিশু ছিল।
দীর্ঘ বিরতির পর আবারও কিডস অ্যালাউন্স প্রদান কার্যক্রম শুরু হওয়ায় উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসারদের কাছে শিক্ষার্থীদের হালনাগাদ তথ্য চাওয়া হয়েছে। উপজেলা থেকে হালনাগাদ তথ্য পাওয়ার পর জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিস সেটি চূড়ান্ত করবে। তবে, জেলা পর্যায়ের কর্মকর্তারা বলছেন, শিক্ষার্থীদের সংখ্যা খুব বেশি হেরফের হবে না।
কর্মকর্তারা বলছেন, কিডস অ্যালাউন্সের টাকায় জামা,জুতা ও ব্যাগ কিনবে শিক্ষার্থীরা। মোবাইল অ্যাপস নগদের মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের স্ব স্ব অ্যাকাউন্টে এই টাকা দেয়া হবে। প্রত্যেক শিক্ষার্থী এক হাজার টাকা করে পাবে।
সংশ্লিষ্টরা বলছেন, প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় ২০২০ সাল থেকে কিডস অ্যালাউন্স দেয়ার ঘোষণা দেয়। কিন্তু করোনার কারণে ২০২০ ও ২০২১ সালে কিডস অ্যালাউন্স ও উপবৃত্তির অর্থ ছাড় করেনি অর্থ মন্ত্রণালয়। এরমধ্যে অনেক শিক্ষার্থী প্রাথমিকের পাঠ চুকিয়ে মাধ্যমিকে পা রেখেছে।
দীর্ঘ দু’ বছর পরে এসে আবারও কিডস অ্যালাউন্স বিতরণের উদ্যোগ নিয়েছে মন্ত্রণালয়। ইতিমধ্যে অর্থ মন্ত্রণালয় বরাদ্দকৃত অর্থ ছাড় করার প্রক্রিয়া শুরু করেছে। সংশ্লিষ্ট একাধিক সূত্র জানিয়েছে, আগামী ৩০ জুনের মধ্যে কিডস অ্যালাউন্সের টাকা ছাড় করা হতে পারে।
এ বিষয়ে জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার শেখ অহিদুল আলম বলেন, এখনো পর্যন্ত কোনো চিঠি পাইনি। তবে, আগামী সপ্তাহে বোঝা যাবে কবে নাগাদ সবাই অর্থ পাবে।
তিনি জানিয়েছেন, ২০২০ ও ২০২১ সালে যারা প্রাথমিক শেষ করে মাধ্যমিকে গেছে তারা কিডস অ্যালাউন্স পাবে না। বর্তমানে যারা প্রাথমিকে অধ্যয়নরত কেবল তারাই এই সুবিধা পাবে।
এদিকে, কিডস অ্যালাউন্সের অপেক্ষায় রয়েছেন যশোরের দু’ লক্ষাধিক অভিভাবক। সাথে শিক্ষার্থীরাও। বিশেষ করে হতদরিদ্র অভিভাবকরা এক হাজার টাকা পেলে অনেক উপকৃত হবেন বলে জানিয়েছেন। তারা বলছেন, এক হাজার টাকা একসাথে পেলে শিশুদের জন্য খরচ করতে পারবেন। ফলে, অনেকাংশে চাপ কমবে তাদের উপর থেকে

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *