Type to search

‘টিসিবির লাইনে দাঁড়ানো লজ্জার কিছু নয়’

জাতীয়

‘টিসিবির লাইনে দাঁড়ানো লজ্জার কিছু নয়’

কামরাঙ্গীরচরে গতকাল টিসিবির ট্রাক থেকে ছয় পণ্যের ৭২০ টাকার প্যাকেজ কিনতে হয়েছে ক্রেতাদের। এর মধ্যে ছিল খেজুর (এক কেজি ৮০ টাকা), চিনি (২ কেজি ১১০ টাকা), মোটা দানার মসুর ডাল (২ কেজি ১৩০ টাকা), সয়াবিন তেল (দুই লিটার ২২০ টাকা), ছোলা (২ কেজি ১০০ টাকা) ও পেঁয়াজ (চার কেজি ৮০ টাকা)।

কামরাঙ্গীরচরে গতকাল টিসিবির পরিবেশক ছিল সিগমা প্যাসিফিক। পেঁয়াজ নিয়ে ক্রেতাদের অভিযোগের বিষয়ে পরিবেশকের বিক্রয় প্রতিনিধি গোলাম হাক্কানি প্রথম আলোকে বলেন, যে পেঁয়াজ তাঁরা টিসিবির গুদাম থেকে আনেন, সেই পেঁয়াজই বিক্রি করেন।

নারীদের লাইনে কিছুক্ষণ পরপরই হট্টগোল হচ্ছিল। এর কারণ কেউ কেউ লাইনে দাঁড়িয়ে বলতেন, তাঁর সঙ্গে আরও একজন বা দুজন আছেন। তাঁরা পরে আসবেন। এটি অনেকেই মানতে চাইতেন না। এরপর হট্টগোল শুরু হতো। লাইনে যাতে বিশৃঙ্খলা না হয়, সে চেষ্টা করছিলেন রুনা বেগম নামের এক নারী। স্বামী ও দুই সন্তান মিলে চারজনের সংসার রুনার। তাঁর স্বামী নির্মাণশ্রমিক।

রুনা বেলা দুইটার দিকে লাইনে দাঁড়ালেও পণ্য হাতে পান বিকেল পাঁচটার দিকে। এর কারণ নারীদের লাইনে ক্রেতার সংখ্যা পুরুষদের লাইনের তুলনায় প্রায় তিন গুণ বেশি ছিল। রুনা জানান, স্থানীয় একটি প্লাস্টিক কারখানায় কাজ করেন। তাঁদের প্রতি সপ্তাহে বেতন দেওয়া হয়। তিনি পান ১ হাজার ৫০০ টাকা। আক্ষেপ করে বললেন, গত ঈদুল আজহার পর আর তাঁদের ঘরে গরুর মাংস রান্না হয়নি।

সূত্র : প্রথম আলো :

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *