Type to search

অভয়নগরে অর্থভাবে মেধাবী তনুজিতের জীবন প্রদীপ কী নিভে যাবে???

অন্যান্য অভয়নগর

অভয়নগরে অর্থভাবে মেধাবী তনুজিতের জীবন প্রদীপ কী নিভে যাবে???

স্টাফ রিপোর্টার
অর্থভাবে আর কিছু দিনের মধ্যে হয়তো জীবন প্রদীপ নিভে যাবে অতি মেধাবী শিক্ষার্থী তনুজিতের। তার নাপিত বাবা একমাত্র ছেলের নিথর দেহ মায়ের কোলে তুলে দিয়ে বলবে চির নিদ্রায় ঘুমিয়ে আছে তোমার খোকন। ওকে আর ডেকো না। তনুজিত রায়(১৪) বøাড ক্যান্সারে আক্রান্ত হওয়ায় এমন আশংকা করছে তার পিতা মাতা।
যশোর বোর্ডের সেরা ১০ বিদ্যালয়ের একটি নওয়াপাড়া মডেল মাধ্যমিক বিদ্যালয়। তনুজিৎ ওই বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির শিক্ষার্থী। শ্রেণি শিক্ষক কামরুজ্জামান শাহীন জানান তনুজিৎ সেরা ১০ জন শিক্ষার্থীর মধ্যে একজন। সে অতি মেধারী শিক্ষার্থী, পঞ্চম শ্রেণিতে জিপিএ ৫ পেয়ে ট্যালেন্ডপুল বৃত্তি লাভ করে। করনা প্রভাবে অষ্টম শ্রেণিতে পরীক্ষা না হওয়ায় সে বৃত্তি থেকে বঞ্চিত হয়েছে।
তনুজিৎ রায় বøাড ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে দুই মাস যাবৎ ঢাকার আহসানিয়া মিশন ক্যান্সার হাসপাতালে চিকিৎসীন রয়েছে। তার জীবন সংকটাপন্ন। প্রতিদিন তার চিকিৎসার জন্য ২৫ থেকে ৩০ লাখ টাকার প্রয়োজন হচ্ছে। তনুজিতের চিকিৎসায় নিয়েজিত ডাক্তার জানান, নিয়মিত চিকিৎসায় এ রোগ থেকে আরোগ্য লাভ করা সম্ভাব।
তনুজিতের দেখভালে নিয়োজিত রয়েছেন তার মামা। তিনি জানান তনুজিৎ আগের থেকে একটু সুস্থ্য হয়েছে। এখন খাবার খেতে ও নড়া চড়া করতে পারছে। বর্তমানে তার পিছে প্রতিদিন ওষুধ , রক্ত ও প্লাজমা বাবদ প্রায় ২৫ থেকে ৩০ হাজার টাকা খরচ হচ্ছে। তনুজিতের পিতা বিশ^জিত রায় তার ছেলের জীবন বাঁচতে সমাজের বৃত্তবানদের কাছে আর্থিক সাহায্যের আহবান করেছেন। সাহায্য পাঠানোর জন্য তিনি আই এফ আইসি ব্যাংক নওয়াপাড়া শাখার সঞ্চয়ী হিসাব নং ৪১৬৩০১১৪৯৯৮১১ ব্যবহার করতে বলেছেন এবং বিকাশ নং দিয়েছেন ০১৭১৪-৯৬১৬১৭।
তনুজিতের বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আলমগীর হোনের হাসান জানান, তিনি বিদ্যালয় থেকে ৪০ হাজার টাকা সংগ্রহ করে তনুজিতের পরিবারের হাতে তুলে দিয়েছেন। এ ছাড়া মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তার মাধ্যমে উপজের সকল বিদ্যালয় থেকে অর্থ সংগ্রহের চেষ্টা করা হচ্ছে।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *