Type to search

শৈলকুপায় কমিশনার প্রার্থী খুন

অপরাধ

শৈলকুপায় কমিশনার প্রার্থী খুন

 

অপরাজেয় বাংলা ডেক্স

 শৈলকূপায় এবার মিললো কমিশনার প্রার্থীর মরদেহ। প্রচারণা করতে গিয়ে কমিশনার প্রার্থীর ভাইয়ের খুনের ৫ ঘন্টার মাথায় স্বতন্ত্র কমিশনার প্রার্থী আলমগীর হোসেন বাবুর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। নদীর মধ্যে দাঁড়ানো অবস্থায় ছিল তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।
বুধবার (১৩ জানুয়ারি) রাত ৮টার দিকে কবিরপুর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী শওকত হোসেনের ভাই আওয়ামীলীগ নেতা লিয়াকত হোসেন ওরফে বল্টু (৫০) ছুরিকাঘাতে নিহত হয়। তিনি উমেদপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক।
এলাকাবাসী জানান, ৮নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী শওকত হোসেন ও তার ছোট ভাই আওয়ামী লীগ নেতা লিয়াকত হোসেন বল্টু পৌর এলাকার কবিরপুরের ভূইমালী পাড়াতে যান প্রচারণা চালাতে। এ সময় তার প্রতিদ্বন্দী প্রার্থী পাঞ্জাবী মার্কার আলমগীর হোসেন বাবুর সমর্থকরা তাকে ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যায়। হামলায় বল্টুর ভাই কাউন্সিলর প্রার্থী শওকত হোসেনও আহত হন । হামলার পর গুরুতর আহত বল্টুকে উদ্ধার করে কুষ্টিয়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু ঘটে।
এ ঘটনার ৫ ঘন্টা পর রাত ১ টার দিকে নদীতে পাওয়া গেছে একই ওয়ার্ডের স্বতন্ত্র কমিশনার প্রার্থী আলমগীর হোসেন বাবুর মরদেহ। নদীর ভেতরে দাঁড়ানো অবস্থায় ছিল তার মরদেহ।
স্থানীয়রা জানিয়েছেন, দুটি মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে প্রচার-প্রচারণাকে কেন্দ্র করে। তারা জানান, একটি ঘটনার জেরে আরেকটি ঘটনা ঘটেছে। এদিকে কমিশনার প্রার্থী আলমগীর হোসেনের সমর্থক ও পরিবার দাবি করছে পরিকল্পিতভাবে তাকে হত্যা করা হতে পারে।
পরপর দিুটি মৃত্যুর ঘটনায় শৈলকুপা পৌরসভার নাগরিক ও ভোটারদের মাঝে চরম উদ্বেগ আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে। শহরসহ পৌর এলাকার সর্বত্র পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। মোড়ে মোড়ে পুলিশ চেকিং চলছে।
শৈলকুপা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জাহাঙ্গীর আলম জানান, কমিশনার প্রার্থী আলমগীর হোসেন বাবুর মৃতদেহ নদী থেকে উদ্ধার করা হয়েছে। তিনি জানান, এই কমিশনার প্রার্থীর মৃত্যুর কারণ তদন্তের পর জানা যাবে। সূত্র, সুবর্ণভূমি

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *