Type to search

মার্কিন কংগ্রেসে মাস্ক না পরলে সদস্যদের বের করে দেওয়ার হুমকি স্পিকারের

আন্তর্জাতিক

মার্কিন কংগ্রেসে মাস্ক না পরলে সদস্যদের বের করে দেওয়ার হুমকি স্পিকারের

অনলাইন ডেস্কঃ  মাস্ক না পরলে আইণপ্রণেতা ও কর্মীদের বের করে দেওয়ার হুমকি দিয়েছেন মার্কিন কংগ্রেসের স্পিকার ন্যান্সি পেলোসি। কংগ্রেসের নিম্নকক্ষের ‘চেম্বারে’ সবাইকে অবশ্যই মাস্ক পরে অধিবেশনে অংশ নেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া সেখানে কর্মরত সব কর্মীকেও মাস্ক পরতে হবে। এ নিয়ম ভঙ্গ করলে, শাস্তি হিসেবে চেম্বার থেকে বের করে দেওয়া হতে পারে বলে সতর্কবার্তা দিয়েছেন ন্যান্সি পেলোসি।

যা বলেছেন ন্যান্সি পেলোসি

টেক্সাস থেকে নির্বাচিত কংগ্রেস সদস্য লুই গোমার্ট নিয়মিত মাস্কবিহীন ঘোরাঘুরি করেন। গতকাল বুধবার তাঁর দেহে নভেল করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। এর পরই স্পিকার পেলোসি এমন নিয়ম ঘোষণা করেন। সংবাদমাধ্যম বিবিসি এ খবর জানিয়েছে।

ক্যালিফোর্নিয়া অঞ্চল থেকে নির্বাচিত ডেমোক্র্যাট দলীয় ন্যান্সি পেলোসি বলেছেন, নিম্নকক্ষে উপস্থিত অন্যদের স্বাস্থ্যের নিরাপত্তার কথা মাথায় রেখে সবাইকে মাস্ক পরার এ নিয়মকে সম্মান করতে হবে। তিনি জানান, বক্তব্য দেওয়ার সময়ই কেবল সদস্যরা মাস্ক খুলতে পারবেন।

ন্যান্সি বলেন, কেউ যদি মাস্ক না পরেন, তাহলে তিনি নিম্নকক্ষের মর্যাদা ক্ষুণ্ণ করেছেন, বিষয়টিকে সেভাবেই তিনি দেখবেন।

কংগ্রেসে ইতোমধ্যেই সাতজন রিপাবলিকান ও তিনজন ডেমোক্র্যাট করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন।

বিশেষজ্ঞরা বারবার বলে আসছেন মুখে সঠিকভাবে মাস্ক পরলে সংক্রমণের আশঙ্কা অনেক কম থাকে।

যুক্তরাষ্ট্রে মাস্ক বিতর্ক

যুক্তরাষ্ট্রে মাস্ক একটি বিতর্কের বিষয়। মাস্কবিরোধী হিসেবে এ বিতর্কের কেন্দ্রে রয়েছেন স্বয়ং মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

প্রকাশ্যে মাস্ক না পরে ঘুরে বেড়ানো, মাস্ক কোনো কাজ করে না, এমন টুইট করা, মাস্কবিহীন চিকিৎসকের প্রশংসা করা—  নানাভাবে ট্রাম্প বিতর্কের জন্ম দিয়েছেন। ন্যান্সি পেলোসি কংগ্রেসে মাস্ক পরা নিয়ে সতর্কতামূলক বার্তা দিয়ে মার্কিন প্রেসিডেন্টের উল্টো অবস্থান নিয়ে, সে বিতর্ক আরো উসকে দিয়েছেন। ন্যান্সি পোলোসিকে বিভিন্ন সময় নানা রঙের মাস্ক পরতে দেখা গেছে।

মাস্কবিহীন অবস্থানের জন্য লুই গোমার্টও বেশ আলোচিত-সমালোচিত হয়েছেন। গতকাল বুধবার ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে তাঁর টেক্সাস সফরে যাওয়ার কথা ছিল। এর অংশ হিসেবে নিয়মিত নমুনা পরীক্ষা করার পর লুই গোমার্টও পজিটিভ হিসেবে শনাক্ত হয়েছেন।

আটবার নির্বাচিত কংগ্রেস সদস্য গোমার্ট আরো অনেক রিপাবলিকানদের মতো মাস্ক পরতেন না। এমনকি অধিবেশন চলাকালে তাঁরা নিয়মিত মাস্ক পরিহার করেছেন। তবে আক্রান্ত হওয়ার পর ৬৬ বছর বয়স্ক কংগ্রেসম্যান বলেছেন, মাস্ক না পরাটাই তাঁর আক্রান্ত হওয়ার জন্য দায়ী কি না, তা ভাবছেন তিনি। শনাক্ত হওয়ার একদিন আগে গত মঙ্গলবারই অ্যাটর্নি জেনারেল উইলিয়াম বার ও লুই গোমার্টকে মাস্কবিহীন অবস্থায় খুব কাছাকাছি বসে কথা বলতে দেখা গেছে। এমন পরিস্থিতিতে উইলিয়াম বারকেও কোভিড-১৯ পরীক্ষা করাতে হবে। অন্যদিকে ডোনাল্ড ট্রাম্পকেও সম্প্রতি মাস্ক পরতে দেখা গেছে।

Tags:

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *