Type to search

মনিরামপুরে সংবাদ সম্মলনে তাপসী বললেন আমাকে কউে জোর করে উচ্ছদে করেনি

যশোর

মনিরামপুরে সংবাদ সম্মলনে তাপসী বললেন আমাকে কউে জোর করে উচ্ছদে করেনি

মনরিামপুর (যশোর) প্রতনিধিি :
জোর করে কউে স্বামীর ভটিা থকেে আমাকে উচ্ছদে করনে।ি উপযুক্ত মূল্যে মনরিামপুর উপজলোর পাঁচাকড়ি গ্রামরে হরন্দ্রেনাথ মল্লকিরে ছলেে পবত্রি বশ্বিাসকে লখিতি পত্ররে মাধ্যমে বক্রিি করা হয়ছে।ে গত ১১ জানুয়ারি বক্রিকিৃত সমুদয় স্থাপনা পবত্রিকে বুঝে দয়ো হয়। এ নয়িে স্থানীয় হরচিাঁদ, রমশেসহ একটি কু-চক্রীমহল ষড়যন্ত্র করে নানা অপ-প্রচার চালাচ্ছ।ে মঙ্গলবার বকিলেে মনরিামপুর প্রসেক্লাবে এক সংবাদ সম্মলেনে এসব কথা বলনে একই গ্রামরে সুপনে মল্লকিরে স্ত্রী তাপসী রানী মল্লকি।
এ সময় তনিি সংবাদ সম্মলেনে দাবী করনে, স্বামীর পত্রৈকি সূত্র ধরে বহু বছর ধরে সখোনে তারা বসবাস করে আসছ।ে কঠোর পরশ্রিমকৃত রোজগাররে টাকা দয়িে পাকা বাড়,ি গোয়াল ঘরসহ প্রয়োজনীয় স্থাপনা নর্মিান করা হয়। এসব স্থাপনা ওপর লোলুপ দৃষ্টি পড়ে করে হরচিাঁদ, রমশেসহ স্থানীয় কয়কেজনরে। বভিন্নি সময় এসব স্থাপনা এক প্রকার বনিামূল্যে দাবি করে আসছলিো হরচিাঁদ ও রমশে গংরা। তাদরে কথায় রাজি না হওয়ায় তাকে ও তার স্বামীকে কয়কেবার মারপটি করছেে বলে তনিি দাবি করনে। তাদরে প্রতনিয়িত হুমকরি মূখে তারা ভীতকির পরবিশেরে মধ্যে বসবাস করে আসছলিনে। উপায়ন্তর না পয়েে সম্প্রতি সইে দখলীয় বসতঘরসহ আসবাবপত্র একই গ্রামরে হরন্দ্রেনাথ বশ্বিাসরে ছলেে পবত্রি বশ্বিাসরে কাছে বক্রিি করা হয়। যা উভয় পরবিাররে মধ্যে রর্কেড হসিবেে লখিতিপত্র রয়ছে।ে
এতদ্বসত্ত্বে ওই এলাকার হরচিাঁদ ও রমশে গংরা তাদরে (তাপসী) উচ্ছদে করে তাড়য়িে জোর করে বসতঘর পবত্রি বশ্বিাস দখল করে নয়িছেে বলে অপ-প্রচার করে ঘোলা পানতিে মাছ শকিার করার হীন অপচষ্টো অব্যাহত রখেছে।ে যা সর্ম্পূণ মথ্যিা-বানোয়াট ও হীনর্স্বাথে করা বলে তনিি দাবি করনে। বষিয়টি তদন্তর্পূবক সত্য ঘটনা উন্মোচন করতে সাংবাদকিদরে মাধ্যমে সংশ্লষ্টি প্রশাসনরে সদয় দৃষ্টি কামনা করছেনে তাপসী রানী মল্লকি।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *