Type to search

নড়াইল-১ আসনে স্বামী কবিরুল হক মুক্তি স্ত্রী চন্দনা হকের মনোনয়ন সহ বৈধ ৪ বাতিল ১ স্থগিত ২

জেলার সংবাদ

নড়াইল-১ আসনে স্বামী কবিরুল হক মুক্তি স্ত্রী চন্দনা হকের মনোনয়ন সহ বৈধ ৪ বাতিল ১ স্থগিত ২

 

নড়াইল প্রতিনিধি

মনোনয়নপত্র বাছাইয়ের প্রথমদিন বৃহস্পতিবার নড়াইল-১ (সদরের একাংশ এবং কালিয়া উপজেলা) আসনে আওয়ামী লীগ মনোনীত বিএম কবিরুলক মুক্তি ও তার স্ত্রী স্বতন্ত্র চন্দনা হক সহ চার প্রার্থীর মনোনয়নপত্র বৈধ বলে ঘোষণা করা হয়েছ এবং অপেক্ষামান রয়েছে ২ জন,বাতিল হয়েছে ১ জন।

শুক্রবার থেকে মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই শুরু হয়েছে, চলবে ৪ ডিসেম্বর পর্যন্ত। ইসি সূত্র বলা হয়েছে , মনোনয়নপত্র যাচাইয়ে যে বিষয়গুলো বেশি গুরুত্ব পাচ্ছে তা হলো প্রার্থীর ব্যক্তি তথ্য। মনোনয়ন তথ্য গোপন করলেই যে কোনো প্রার্থীর মনোনয়নপত্র বাতিল হতে পারে।

মনোনয়নপত্র বাছাইয়ের প্রথমদিন বৃহস্পতিবার নড়াইল-১ (সদরের একাংশ এবং কালিয়া উপজেলা) আসনে চার প্রার্থীর মনোনয়নপত্র বৈধ বলে ঘোষণা করা হয়েছ।

এরই ধারাবাহিকতায় শনিবার (০২ ডিসেম্বর) নড়াইল-১ (সদরের একাংশ এবং কালিয়া উপজেলা) আসনে ৪ জনের মনোনয়নপত্র প্রার্থীর মনোনয়নপত্র বৈধ বলে ঘোষণা করা হয়েছে।

মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই শেষে জেলা রিটার্নিং অফিসার ও জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আশফাকুল হক চৌধুরী জানান,আওয়ামীলীগের মনোনীত প্রার্থী বিএম কবিরুল হক মুক্তি,স্বতন্ত্র চন্দনা হক, বাংলাদেশ ওয়ার্কার্স পার্টির অ্যাডভোকেট নজরুল ইসলাম, ও জাতীয় পার্টি (জেপি)’র শামীম আরা পারভীনের মনোনয়নপত্র বৈধ ঘোষনা করেন। স্বতন্ত্র প্রার্থী সিকাদার মো: শাহাদৎ হোসেন মনোনয়নপত্রে ১% ভোটার স্বাক্ষর সম্পর্কিত তথ্য ত্রুটি থাকায় তার মনোনয়নপ্রত বাতিল করেন এবং তৃণমূল বিএনপি’র প্রার্থী শ্যামল চৌধুরীর নামের গড়মিল থাকায় এবং জাতীয় পার্টির মিলটন মোল্যার বিদ্যুৎ বিল ও আদালতের মামলার ডকুমেন্টস মনোনয়নপত্রে সংযুক্ত না থাকায় এ দুইজনের মনোনয়নপত্র অপেক্ষামান রাখা হয়।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) জুবায়ের হোসেন চৌধুরী, জেলা নির্বাচন অফিসার, বাংলাদেশ ওয়ার্কার্স পার্টির অ্যাডভোকেট নজরুল ইসলাম, জাতীয় পার্টির মিলটন মোল্যা, স্বতন্ত্র প্রার্থী সিকাদার মো: শাহাদৎ হোসেন, অন্যান্য প্রার্থীদের প্রতিনিধিবৃন্দ, সাংবাদিকবৃন্দ।

রোববার ০৩ ডিসেম্বর সকাল ১১টায় নড়াইল-২ আসনের মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই অনুষ্ঠিত হবে।

গত ৩০ নভেম্বর শেষ হয়েছে মনোনয়নপত্র দাখিলের সময়।নির্বাচনে অংশ নিতে ইচ্ছুক দুই হাজার ৭১৩ জন ৩০০ আসনে মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন। এরমধ্যে রাজনৈতিক দলের প্রার্থী এক হাজার ৯৬৬ এবং স্বতন্ত্র প্রার্থী ৭৪৭ জন।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *