Type to search

চুয়াডাঙ্গায় ৩ দিনব্যাপী জাতীয় পিঠা ও লোকসংগীত উৎসব শুরু

লাইফস্টাইল

চুয়াডাঙ্গায় ৩ দিনব্যাপী জাতীয় পিঠা ও লোকসংগীত উৎসব শুরু

চিত্তরঞ্জন সাহা চিতু চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি:        বাংলা সিনমার একটি বিখ্যাত গান ভাপা পিঠারে তোরে খাইতে গিয়া…  এই গান বাজলে গ্রাম বাংলার ঐতিহ্য নানা স্বাদের  পিঠা-পুলির কথা মনে পড়ে যায়।চুয়াডাঙ্গা  জেলা শিল্পকলা একাডেমি চত্বর ও দামুড়হুদা শিল্পকলা একাডেমি মাঠে  বাঙালীর এই ঐতিহ্য ধরে রাখতে তিন দিনব্যাপী জাতীয় পিঠা ও লোকসংস্কৃতি উৎসব শুরু হয়েছে।
বুধবার বিকেলে চুয়াডাঙ্গা বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমীর আয়োজনে এ উৎসবের উদ্বোধন করেন জেলা প্রশাসক ড. কিসিঞ্জার চাকমা। এসময় উপস্থিত ছিলেন  জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মাহফুজুর রহমান মঞ্জু,অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) নাজমুল হামিদ রেজা, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক শারমিন আক্তার ও অতিরিক্ত পুলিশ সুপার নাজিম উদ্দীন আল আজাদ। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষ।
অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) নাজমুল হামিদ রেজার সভাপতিত্বে জেলা প্রশাসক ড. কিসিঞ্জার চাকমাসহ সকল বক্তাই তাদের বক্তব্যে বলেন বাঙালির ঐতিহ্য ও আগামী প্রজন্মের কাছে বাঙালির পিঠার পায়েস পরিচয় করিয়ে দেওয়ায় সরকারের এমন আয়োজন।
উৎসবে আসা দর্শনার্থীরা বলেন এমন আয়োজন প্রতিবছর করার প্রত্যাশা করেন এবং অনেকে উৎসবে প্রদর্শিত পিঠার মূল্য কম রাখার আব্বান জানায়।
তবে, জেলা প্রশাক বলেন পিঠা ও লোকো সংস্কৃতি আমাদের জাতীয় জীবনের একটি গুরুত্বপূর্ণ অনুসঙ্গ। পিঠা ছড়া বাঙালী জীবন চিন্তায় করা যায় না।
উৎসবকে ঘিরে পিঠার পায়েসের ১২টি স্টলের পাশাপাশি বিভিন্ন খাবারের পশরা বসানো হয়। এছাড়াও লোকোজ সংস্কৃতির অংশ হিসাবে জেলার গুণি সংগীত  ও নৃত্য শিল্পীের  অংশ গ্রহণে  নাচে গানে উৎসবে উপস্থিত দর্শক স্রতাদের মন ভরিয়ে তোলে।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *